ত্রিপুরায় ৯ ‘বাংলাদেশি’ গ্রেপ্তারের দাবি পুলিশের

Print Friendly, PDF & Email

আইন সমাজ ডেক্স, ১২ অক্টোবর ২০২০ বুধবার:

ভারতের ত্রিপুরায় নয় কথিত ‘বাংলাদেশি’ নাগরিককে গ্রেপ্তারের দাবি করেছে স্থানীয় পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া সকলেই হিন্দু ধর্মালম্বী। তাদের মধ্যে তিন জন নারী ও তিন জন অপ্রাপ্তবয়স্ক রয়েছে। অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের অভিযোগে সোমবার গ্রেপ্তার করা হয় তাদের। মঙ্গলবার তাদের একটি স্থানীয় আদালতের সামনে হাজির করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে ভারতের দ্য টেলিগ্রাফ।
পুলিশের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, সোমবার পশ্চিম ত্রিপুরার মাতাই গ্রাম থেকে আটক করা হয় অভিযুক্ত বাংলাদেশিদের। স্থানীয় পুলিশ স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিজয় সেন জানান, গ্রামবাসীরা ‘বাংলাদেশিদের’ আটক করে আমাদের খবর দেয়। আমরা ঘটনাস্থলে গেলে আমাদের কাছে সোপর্দ করা হয়।
সেন আরো জানান, গ্রেপ্তার করা ব্যক্তিরা কোনো বৈধ কাগজপত্র প্রদর্শন করতে পারেনি।

প্রাথমিক তদন্তে বেরিয়ে আসে যে, তারা সেখানে অবৈধভাবে বাস করছিল। গ্রামটি সীমান্ত থেকে মাত্র ৬০০ মিটার দূরে অবস্থিত। আমরা তাদের আদালতের সামনে হাজির করেছি।
আটক করা ব্যক্তিদের মিনু দাস (৪৫), সুস্মিতা দাস (২০), শিবা দাস (২), রিনা দাস (১৪), বকুল দাস (৩০), রানিকা দাস (৭), পুতুল দাস (৭৫), অনিল দাস (৭০) ও রঞ্জন দাস (৪৪) নামে চিহ্নিত করা হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দালালদের সহযোগীতায় ভারতে প্রবেশ করেছিল তারা।
এদিকে, অপর এক ঘটনায় গত রোববার ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী  মাসুম মিয়া (৩৩) ও মোহাম্মদ রশিদ (৫৫) নামের দুই ‘বাংলাদেশি’কে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *